২৫ মে ২০২০,   ঢাকা, বাংলাদেশ  
Login          

নানিয়ারচরে উপ-নির্বাচনে প্রগতি চাকমা বিজয়ী



রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে প্রগতি চাকমা বিজয়ী হয়েছেন। জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সংস্কার এমএন লারমা গ্রুপ সমর্থিত আনারস প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ১৪ হাজার ৪৪০ ভোট।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) প্রসীত গ্রুপ সমর্থিত প্রণতি চাকমা কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন আট হাজার ১০৪ ভোট।

বুধবার (২৫ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চার ইউনিয়নের ১৪টি কেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এ উপজেলার চার ইউনিয়নে ৩২ হাজার ৮৫৪ জন ভোটার রয়েছে। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছে ১৭ হাজার আটজন এবং নারী ভোটার রয়েছে ১৫ হাজার ৮৪৬ জন।

উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন প্রগতি চাকমা, কল্পনা চাকমা এবং প্রণতি রঞ্জন খীসা। এদের মধ্যে প্রগতি চাকমা জেএসএস সংস্কার এমএন লারমা গ্রুপ, কল্পনা চাকমা হচ্ছে স্বতন্ত্র এবং ইউপিডিএফ সমর্থিত প্রার্থী হচ্ছেন প্রণতি চাকমা।

রাঙামাটি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার আব্দুল লতিফ শেখ  জানান, এবারের নির্বাচনে আনারস প্রতীক নিয়ে প্রগতি চাকমা বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ১৪ হাজার ৪৪০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রণতি চাকমা কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন আট হাজার ১০৪ ভোট।

তিনি আরও জানান, শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। প্রতিটি কেন্দ্রে নিরাপত্তা জোরদার ছিলো।

গত ৩ মে নিজ কার্যালয়ের সামনে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা। এতে পদটি শূন্য হওয়ায় উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি।

নির্বাচন পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন নারী ভাইস চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা।