২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১,   ঢাকা, বাংলাদেশ  
Login          

মিম মানতাশা : লাক্স সুপারস্টার ২০১৮



বৈশাখের শেষ দিকে শুক্রবারের আকাশ প্রায় সারা দিনই মুখ ঘোমড়া করে রেখেছে। ঢাকার পুরো আকাশ যখন অভিমানী মেঘের অন্ধকারে, তখন রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে আলোর রোশনাই। তারার আলোয় আলোকিত পুরো মিলনায়তন, তাঁদের সবার চোখ খুঁজে ফিরছে একজনকে, কে হচ্ছেন ২০১৮ সালের লাক্স সুপারস্টার? সবাইকে বেশি দেরি করতে হয়নি। প্রায় দেড় ঘণ্টার এই অনুষ্ঠানের একদম শেষে জানা গেল এবার ‘লাক্স সুপারস্টার’ হয়েছেন মিম মানতাসা। আর প্রথম রানারআপ হয়েছেন সারওয়াত আজাদ ও দ্বিতীয় রানারআপ সামিয়া অথৈ।


‘লাক্স সুপারস্টার’ মিম মানতাসা পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন পাঁচ লাখ টাকা আর একটি নতুন গাড়ি। প্রথম রানারআপ সারওয়াত আজাদ পেয়েছেন চার লাখ টাকা এবং দ্বিতীয় রানারআপ সামিয়া অথৈ তিন লাখ টাকা। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইউনিলিভারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেদার লেলে এবং চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর।

পাবনার মেয়ে মিম মানতাসা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ছাত্রী। পুরস্কার পাওয়ার পর নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এবারই প্রথম আমি কোনো প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছি। কিছু একটা করব, এমন স্বপ্ন নিয়েই অংশ নিয়েছিলাম। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন হব, এটা কখনো ভাবিনি। এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।’

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে আজ গ্র্যান্ডফিনালে অনুষ্ঠান শুরু হয় ‘তুমি দেখিয়ে দাও অদেখা তোমায়’ গানের সঙ্গে ‘লাক্স সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতার এবারের আসরের সেরা দশ প্রতিযোগীর নাচ দিয়ে। এরপর অনুষ্ঠানের উপস্থাপকেরা ঘোষণা দেন, এবার পারফর্ম করবেন এই প্রতিযোগিতার তিন বিচারক আরিফিন শুভ, তাহসান ও সাদিয়া ইসলাম মৌ। তবে তিন বিচারকের পরিবেশনা উপস্থিত সবার নজর কাড়ে।

কয়েক দিন ধরে শোবিজের নানা ঘরোয়া আয়োজনে একটাই প্রশ্ন ছিল, কে হবেন ‘চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপারস্টার ২০১৮’? কে হতে চলছেন মিম, মেহজাবিন, মমদের যোগ্য উত্তরসূরি?

শুক্রবার সন্ধ্যায় গ্র্যান্ডফিনালে অনুষ্ঠানে সেরা পাঁচ প্রতিযোগী সামিয়া অথৈ, মিম মানতাসা, সারওয়াত আজাদ, ইশরাত জাহিন ও নাবিলা আফরোজের পরিবেশনার পর বিচারকেরা নম্বর দিতে শুরু করেন।

প্রতিভা, আত্মবিশ্বাস, দৃঢ়তা, পরিশ্রম ও প্রত্যয়—সবকিছু নিয়েই একজন নারী। এই ভাবনা নিয়ে এ বছর ৩ জানুয়ারি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে প্রতিযোগিতার নবম আসর। সারা দেশ থেকে অংশ নেওয়া ১২ হাজার প্রতিযোগীর মধ্য থেকে পর্যায়ক্রমে গ্র্যান্ডফিনালের জন্য বাছাই করে নেওয়া হয় সামিয়া অথৈ, মিম মানতাসা, সারওয়াত আজাদ, ইশরাত জাহিন ও নাবিলা আফরোজকে। গত পাঁচ মাসে ফটোশুট, অভিনয়, নাচ, মডেলিংসহ বিভিন্ন টাস্কের মাধ্যমে প্রতিযোগীদের ভেতর থেকে বের করে আনা হয় তাঁদের অদেখা প্রতিভাগুলো। 

লাক্স সুপারস্টারের এবারের গ্র্যান্ডফিনালেতে ছিল চমকপ্রদ সব আয়োজন। একই মঞ্চে একই সঙ্গে পরিবেশনায় অংশ নেন সাবেক তিন লাক্স তারকা মিম, মেহ্জাবীন ও মম।

দেশের সবচেয়ে বড় এবং জনপ্রিয় প্রতিযোগিতা ‘লাক্স সুপারস্টার’ অনুষ্ঠিত হয় লাক্স ও চ্যানেল আইয়ের যৌথ আয়োজনে।

গ্র্যান্ডফিনালেতে নিয়মিত তিন বিচারকের পাশাপাশি অতিথি বিচারক ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, অভিনয়শিল্পী আলী যাকের ও রুমানা রশিদ ইশিতা। লাক্স সুপারস্টারের নাম ঘোষণার আগে তিনটি বিশেষ পুরস্কার দেওয়া হয়। এগুলো হচ্ছে মোস্ট কনফিডেন্ট অ্যাওয়ার্ড পূজা, মোস্ট এন্টারটেইনিং অ্যাওয়ার্ড তাইপা, মোস্ট স্টাইলিশ অ্যাওয়ার্ড ইশরাত।

লাক্স সুপারস্টার প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ডফিনালেতে তারকাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেরদৌস, পূর্ণিমা, মাহি, বাপ্পী চৌধুরী, আবিদা সুলতানা, ওমর সানী, সারা যাকের, শান্তা ইসলাম, মুনিরা ইউসুফ মেমী প্রমুখ।